মধ্যরাত এখন আমার জানালায়

আজ আর দেহ খেলা নয়, রাত্রির সমুদ্রে যাব আঁধার বিলাসী হতে 
তুমি 
তীরে থেকো, জল হইয়ো অথবা জলযান

জেগে ওঠা রাত্রিতে তুমি শিখাও শব্দের কাম 
শূন্যতার সঙ্গম 

সেইসব উত্তপ্ততায় 
আমাদের অস্থি মজ্জা জ্বলে গলে গেলে শূন্যতায় ভাসে কালের শিৎকার 

আমরা বহমান হলে জল নিয়ে খেলা করি 
শূন্যতার বুকে মুহূমুহু চুম্বন করি 

কখনো কখনো বিবেক জেগে গেলে আমরা দু'চোখ বুঁজে ফেলি 
এ সান্বিধ্যে কোন দেহকিট নেই, শুধু অনুভব আছে 
অনুতাপও 

শূন্যতার সঙ্গমে একজনই গর্ভধারণ করেছিলেন অনুতাপহীন 

তুমি আমি এই ধরাধামের উৎকৃষ্ট বীর্যের নিকৃষ্ট অস্তিত্ব, আমাদের শূন্য সঙ্গমে চারিত্রিক পতন অবধারিত, কোথাও আলোকিত নক্ষত্র সৃষ্টি হতে পারেনা 

শুধু আলো-আঁধারের অতি সূক্ষ্মতম অংশের সংঘর্ষে 
প্রতি সূক্ষ্মতম মুহূর্তের পরিবর্তন হতে থাকে 

মধ্যরাত এখন আমার জানালায়, ওপারে আঁধারের সমুদ্রে ঢেউ 
বুকে এসে লাগে, মিশে যেতে থাকে, বালিয়াড়ি পার হয়ে চেয়ে দেখি কামনার জল 

তুমি জল হয়ে থেকো অথবা জলযান 
আজ উত্তাল সমুদ্রে যাব 

নিশ্চিত থেকো 
ডুবে যাবার আগে তোমার সওয়ারি হবো।। 



0 comments:

Post a Comment