অরণ্য ঘুমিয়ে গেলে কোথায়


কেউ একজন হেঁটে চলে গেলো
পুষ্পবতীর চোখের ভেতর ,
অতলরাত্রি , জল-দৃশ্য , মায়া-হরিণ
এইসব দেখে শুনে অতঃপর ;
দৃষ্টিছায়ায় -
নৈঃশব্দ্যে মিশে যায় অবাধে ,
অরণ্য ঘুমিয়ে গেলে কোথায় যেন এক –
অন্ধ পাখি কাঁদে ! 



মৃত-পাহাড়ের নির্দেশিকা হাতে রেখে
কেউ একজন অরণ্যে হারিয়ে গেলে –
রাত্রিস্নাত পথ মেলে ধরে
কিছু সমুদ্র সুবাতাস
অথবা -
দৃশ্য থেকে দৃশ্যান্তরে ঝরে পরে
অস্ফুট কামিনী ফুলের ঘ্রাণ !

 

হারানো বাঁশীর সুর ভেসে আসে ধীর লয়ে –
সেই পথ ধরে এগোলেই – এক অনিকেত প্রান্তর ,
অনির্দিষ্ট থেকে –
কেবলই শোনা যায় নিঃসঙ্গ পাতাদের মর্মর ।
কারা গেয়ে চলেছে অচেনা ভাষায় গান ?
অতল জলে একজনের ছায়া ম্লান !
ডুবে যাচ্ছে ক্রমশ –
সুগভীর থেকে সুগভীর অতলে !

0 comments:

Post a Comment