স্পর্শ

পৃথিবীর কিছু কিছু জিনিস মাঝে মাঝেই নিয়ম মানে না ... এই "কিছু কিছু জিনিস" এর মধ্যে একটা হল "মাথা-ব্যথা" !!

পৃথিবীর কোন কোন "মাথা-ব্যথা" একদমই নিয়ম মানতে চায় না ... এইসব "মাথা-ব্যথা" রা নাপা ট্যাবলেট খেলে ভাল হয়ে যায় না ... মাথায় পানি ঢাললেও ভাল হয় না ... ঘুমালেও ভাল হয় না ... চার-পাঁচ কাপ কড়া লিকারের চা কিংবা কফিও এইসব "মাথা-ব্যথা" ভাল করতে পারে না !!

এই "মাথা-ব্যথা" রা একটা জিনিস পেলেই ভালো হয় ... দুটো হাতের স্পর্শ ... যে কারো হাতের স্পর্শ হলে চলবে না ... সেই হাত দুটোর স্পর্শ লাগবে ... একদম সেই হাত দুটোই লাগবে !!

সেই হাত দুটো প্রচন্ড মমতা নিয়ে, প্রচন্ড ভালোবাসা নিয়ে মাথার দুই পাশ ছুঁয়ে দিলেই চলবে ... সেই হাতের পাঁচটা আঙ্গুলের ফাঁকে চুলগুলো অবাধে বিচরণ করবে ... এলোমেলো চুলগুলোর মাঝের ছোট্ট জায়গাগুলো জুড়ে থাকবে অল্প অল্প মায়া ... খুব খারাপ রকমের মাথা ব্যথাগুলো লুকোতে চাইবে ... লুকোনোর জায়গা পাবে না ... আঙ্গুলের স্পর্শে আর ভালোবাসার উষ্ণতায় "মাথা-ব্যথা" বাষ্প হয়ে উড়ে যাবে খুব তাড়াতাড়ি !! 

এই হাত দুটোর স্পর্শ সবাই পায় না ... পায় না বলেই, মাথা ব্যথাগুলো রয়ে যায় ... চায়ের কাপের নিচের তলানিটুকু কিংবা নাপা ট্যাবলেটের ছেঁড়া পাতা বারবার জানিয়ে দেয়ঃ

"মানুষ খুব বেশি কিছু চায় না ... মানুষ খুব কম কিছুও চায় না ... মানুষ যা চায়, সেটার কোন সংজ্ঞা হয় না, পরিমাণ হয় না ... মানূষ অদ্ভূত ... মানুষের চাওয়াগুলোও অদ্ভূত ... তবে তার "না পাওয়া" গুলো অদ্ভূত না ... ওটাকে কেউ অদ্ভূত বলে ডাকে না ... শখ করে মানুষ ওটাকে "বাস্তবতা" বলে ডাকে !!"

0 comments:

Post a Comment