কলগার্ল

ক্লান্ত শরীর নোনতা জীবন জিভ চেটে নেয় ধর্মতলা
আকাশ জুড়ে যখন তখন মনখারাপি কাব্য নামে
ভালবাসার চুল্লি সাজে শহর জুড়ে বিকেলবেলা
তুমি তখন আগুন জ্বাল ভাসাও শরীর গোপন স্নানে

গ্লসি মোড়ক ঠোঁটের ফাঁকে হজম করে নিষিদ্ধতা
সিফন আঁচল আড়াল খোঁজে বস্তাপচা নখের দাগে
ঘুমের চোখে কাঁপন তোলে পেটের খিদেয় বিশুদ্ধতা
তখন তুমি কাজল ঢাল চোখের পাতায় ভীষণ রাগে

মধ্যরাতে তুলায় ওঠে জ্বরের তাপে অসাড় যোনি
শহর আমার শিমুল তুলোয় নরম প্রেমের পদ্য লেখে
তুমি তখন চাঁদ হয়ে যাও গা গুলিয়ে জ্যোৎস্না বমি
অদম্য সব ইচ্ছেগুলো রেলিং ছুঁয়ে কাঁদতে শেখে ...

0 comments:

Post a Comment