একা পাখি কথা কয়ে যায়




ঝরা পাতার মত পড়ে আছে একটা পালক !
নিথর-বয়সি ঝরাপাতা, জোছোনায় নামলো বুঝি
চাঁদ গ্রামগঞ্জের মেঠোপথের কোল ছুঁয়ে !

তখন জোনাকিরা ক্লান্ত আলোর পথ ধরে
এগুচ্ছে -তমালের-শিরিষের শিশিরে গা ভাসাবে
বাকি রাতটুকুর রুপ ধরে ধরে...

শুনতে পাই একা পাখির করুন ডানার ছন্ধ আর
সেইসব দৃশ্যাবলি পাঠ শেখায় ঝরা পাতার।

বাতাসে সঁপেছিলো চাদ সবটুকু
পরশ্রিকাতরতায়, দূরে মাঠের সনাতন দেবদারুর
সংবিগ্ন শাখায় ভিন্ন বেহাগি সুর।

চাঁদের তখন দুই দিন ! এই দিকে অরন্যের স্বাধীনতায়
পা ডুবিয়ে একা পাখি, জন্মান্তরের হিসেব হয়ে
যাচ্ছে- ওইদিকে পাড়ায়-পাড়ায় শিশুদের ঘুমের
ঘোরের কান্না-বিচ্ছেদি সানাইয়ের মত
শোনালো !

নক্ষত্র মনে রেখে রেখে পালকের নিচে
নিজেকে লুকিয়েছে পাখি- উজাড় জীবন বৃক্ষের
সংকেতে ।

এই স্বপ্নের সৎকার হিরন্ময়
বাস্তবতা !

ঝিঁঝিঁরাও চুপ.. তারপর একা পাখি
হরিয়াল- অন্তরের বৃক্ষটাকে বের করে এনে
কথা ক'য়ে যায়...কথা ক'য়ে যায়....

0 comments:

Post a Comment