কাগোজের নৌকা

তার ছেঁড়া মাস্তুলে নিরুদ্দেশ পাসওয়ার্ড প্রেম
বন্দরে বন্দরে কাটাকুটি নাবিকের জং ধরা বুকে
অশরীরী আত্মার মত চোরা স্রোত উপকূল জুড়ে
তবুও সাঁঝবাতি একা বাতিঘরে কাঁপে অপেক্ষায়
পৃথিবীর গন্ধ লেগে থাকা মাটির ওপর, কবেকার
আমলকী রোদ খসে পড়েছিল তার চুলের প্রান্তে
ঠিকানা হারানো চিঠি, নোনাজলে আবছায়া চাঁদ
সেই সব কবিতারা ঘুম দেয় শেওলা গভীরে
আয়নায় টিপ হয়ে লেগে থাকা শরীরের ঘ্রান
মুক্তিপণ দাবি করে বেহিসাবি হার্মা্দের মত
সন্ধ্যাতারা বেঁচে নেওয়া ধু ধু বালি, চর, ঝাউবন
দুরত্ব ভেঙ্গে চলা...... পাশাপাশি, একাকী!

0 comments:

Post a Comment