বাতিঘর

কংক্রিটে মোড়া একফালি জীবনকে উপহার দিলাম এক মনপাগল হাওয়া , সাথে রইলো মনভেজা বৃষ্টি আর… ঘরে ফেরার গান।

শাদা কাগজে একটি নিঃসঙ্গতা
রাতের আকাশে ছটফট করে
দিনের বেলায় বড় বেশি প্রাঞ্জল
মধ্যদুপুরে সিঁড়ি বেয়ে নেমে আসে অন্যপথ ধরে।

 হাঁটতে হাঁটতে পুরনো রাসত্মায় এসে দেখি
শিরীষের ছায়া নেই বটের ডালে
নেই কোকিলের বাস
নীরব দুপুর হাঁটু মুড়ে বসে আছে;

আগত বিকেলের ছায়ায় ভেসে ওঠে
আমার বিপুল সর্বনাশ।
 চোখের কার্নিশে খড়িমাটির দেয়ালওরা
ভাবে এইবার আমার পৃথিবী অন্ধকার
কিন্তু আমার মনের আলোতে
 সেইসবপুঁজিবাদী জাহাজের বাতিঘর ঠিক দেখা যায়?



0 comments:

Post a Comment