একগুচ্ছ কবিতা

হে ভ্যালেরিনা
ঝরা পাতার কোরিওগ্রাফি শিখে গেলে
ভয় জাগে এ বুকে
তুমি পাখিদের ভঙ্গিতে
সাগরের ঢেউ

হাওয়ার তালে
নেচে নেচে আত্মস্থ করে নিলে
অথচ আমার হৃদয়ের এ কম্পনে তোমার শরীর আজো কেঁপে উঠতে দেখিনি।



অপেক্ষক
যেখানে আমাদের পদচারণ অভিশাপে মুছে গেছে সেপথ ফেরত চাইনি,
চেয়েছি খুব করে উদাস আঙুলের ভাঁজে লুকিয়ে যেতে, বিম্বাধরে আকুলতা মাখাতে,
তোমার চুলের অন্ধকারে ডুবে যেতে, দিশেহারা হতে।
আকাশপট রেখে গেলাম, দুঃখ এঁকে দিও নীলে।
আমি অপেক্ষায় থাকবো নীল বারি বর্ষণে।





ভুবন মেলা
রৌদ্রস্নেহে কাঁপে পাতা বৈশাখ শাখে
যেনো কিশোরীর চিবুক বেয়ে জ্যোৎস্না নাচে
আধেক ছায়া
আধেক আলো নামে ডালে ডালে
কোকিল কাকে সই পেতেছে তেঁতুল তলে
কাঁটাবনে বিঁধছে কাটা, কই রে তুই কই সখা
আলোর তলে আধলা পোকা
হয় না রে তার হয় না দেখা
বেলা ফুরাইলে আসিস একা
জ্যোৎস্না এলে বসাবো মেলা।




0 comments:

Post a Comment