গন্তব্য নয় আমি রাস্তা ভালোবাসি



কিছু কান্না রেখে যাবো হৃদয়ের অলিন্দে, হয়তো সুর বলে ভুল করবে, এমন সুর যা কেউ কখনও স্পর্শ করেনি। যে মোচড়ে ব্রম্ভান্ড থেকে তারিফ ঝরে পড়ে...তাকিয়ে দেখো... রুপালী আলো...আমার চূর্ণ বিচূর্ণ স্বপ্নপাত গভীর ধ্যানের শেষে বড় বাস্তব হয়ে থাকে গন্তব্যের হাতছানি। যেসব প্রশ্নের উত্তর কেউ কখনও পায়নি, এ যেন দুর্গম পাহাড়ে পথ খুঁজে না পাওয়া দিগন্ত। মনে রেখো আমি সেই আবহমান ঘোড়া, গন্তব্যের  হাতছানি নেই বলে যে কখনও কুর্নিশ করেনি।

যে গল্পেরা গাছের ফাঁকে পাতার বুকে আটকে থাকে সেই গল্পের বৃষ্টিরা আজ তোর মাঝে। কলম থেকে খাতার উপর যেদিন বৃষ্টি নেমে আসে সমস্বরে ঠিক সেদিনই চোখ খুঁজে পায় ঠিক ঘরের মত এক মায়া, সেই মায়াতে কেমন যেন এক সংসারের গন্ধ ভেসে আসে।

কথা নেই দ্বিধা আছে ,  ব্যাথা নেই, শুন্যতায় ভরা জোছোনা আছে;   তুই সন্ধ্যা  হয়ে যাস বারবার অসময়ে,  শেষ রাতে লেখা কবিতার লাইনগুলি থেকে ধিরে ধিরে হারিয়ে যাস তুই, তারপর রাত নেমে আসে আমার শহরে। 




0 comments:

Post a Comment