স্পর্শবোধ



চৈত্রের দুপুর জুড়ে বৃষ্টি হয়ে যাবে, কি তুমুল

ধুলিঝড়, ঘূর্ণিঝড়, অর্ন্তবাস আকাশে উড়িয়ে...

তারপর বৃষ্টি শেষ হয়ে গেলে, বসন্তের নীলাভ সন্ধ্যায়

অন্ধকারে হেঁটে বের হবে একটি মানুষ;

বিষাল মাটির সিঁথিতে পা রেখে হঠাৎ সে স্বপ্নপ্রবন

গমের শীষের সুড়সুড়ি, খালি পায়ে ঘাসের আত্মার স্পর্শবোধ

গত শতাব্দীর; মাথা সে বাড়িয়ে দেবে বাতাসের আবেগের কাছে

তাহার উত্তপ্ত মাথা,

ধুইয়ে দেবে পরম যত্নের সঙ্গে নগ্ন হওয়া অবিশ্বাসী।

তখনই বুঝবো হয়তো সেই নির্দিষ্ট মানুষতী আমি।

যতটা দুরত্ব তোমরা ভাবতে পারো, ভাবো দূর, বহুদুর, তারো চেয়ে

তারও চেয়ে অর্ন্তভেদী দূরে যাবো, সুপ্রাচীন সুপুরুষ ভবঘুরে হয়ে...

সাথে থাকবে স্কুল-পালানো মায়েটি, বলবে,  ছুঁয়ে দেখো আমিই প্রকৃতি।।



0 comments:

Post a Comment