ছিন্ন ব্যাথামালা


১।

তবু মিটলো না আমার ভালোবাসার সাধ !
কত অমাবস্যা, পূর্ণিমা এল গেল
জোনাকির গান হারিয়ে গেল নিশুতি রাতে,
তবু জোস্নার আলোর মত দ্গদগে ঘা হয়ে-
রাত্রি শেষের শুকতারার মত প্রতিক্ষায় থেকে-
প্রতিক্ষায় থেকে থেকে
সন্ধ্যা-মালতি এ ভালোবাসা
শিশিরের জলে লুকায় চোখের জল।
তবু এ ভালোবাসার সাধ....

২।

আমি ভালবাসি বলে অভিমান করি,
আমি বেঁচে আছি বলে আভিমান করি,
চলে গেলে আর অভিমান করব না,
মরে গেলে আর ভালোবাসব না,
মানুষ শুধু অভিমান টুকুই বুঝে,
কষ্ট কি বুঝে?

৩।

ছিন্ন ব্যথা মালা!
ছিন্ন ব্যথার মালা সাজাই
শিশিরের কষ্ট বুকে নিয়ে-
ঝরে গেছে যে শিঊলি-
তার নির্বাক ভালোবাসায় করি সমর্পণ।
ঝরে যাওয়া পাতার বুকে যে ভালোবাসা
কে তারে দেখে হায়!
নিঃসীম অন্ধকারে কত হৃদ পত্র -
প্রতিদিন ঝরে যায়।
তবু আমি চেয়েছিলাম,এই নক্ষত্রের রাতে
ঝরে পড়ে রব ঘাসের বুকে-
হেমন্তের শিশির মেখে,
কোন দিন সে হেঁটে যাবে পাড়িয়ে আমায়।
বুকের ছিন্ন ব্যথার মালা শিশির হয়ে
জড়াবে তাহার পায়।



0 comments:

Post a Comment