সর্বকালের সেরা ১০ বই

যেকোনো বইই সময়, সমসাময়িক সমাজের ইতিকথা, জীবনধারণের গল্পকে ধারণ করে। তথ্যের নির্ভুলতা, ভাষাশৈলী এবং বর্ণনার কৌশলের ওপর নির্ভর করে কিছু বই হয়ে ওঠে সময়ের সেরা বই। ফিকশন, ননফিকশন, কবিতা, আধুনিক, প্রাচীন—সবগুলো বিষয় বিবেচনায় নিলে এমন শতাধিক বই রয়েছে, যা সর্বকালের সেরা বলে বিবেচিত হতে পারে। এরপরেও সম্ভাব্য যে ১০টি সেরা বই পাঠকের তালিকায় থাকতে পারে, সেগুলো হলো—

01.  Anna Karenina- by Tolstoy

রুশ লেখক লিও তলস্তয়ের ‘আনা কারেনিনা’ উপন্যাসটি ১৮৭৩ সাল থেকে ১৮৭৭ সাল পর্যন্ত বিভিন্ন পর্বে সংবাদপত্রে প্রকাশিত হয়েছে। বই হিসেবে এটি প্রকাশ পায় ১৮৭৮ সালে। এই উপন্যাসটি তলস্তয়ের প্রথম উপন্যাস বলে মনে করা হয়। দস্তয়ভস্কি তাঁর এই লেখাকে ‘শিল্পের নিখুঁত প্রকাশ’ বলে বর্ণনা করেছেন। ভ্লাদিমির নাবোকভও লেখাটিকে ‘তলস্তয় রীতির নিখুঁত জাদু’ বলে আখ্যায়িত করেছেন, আর উইলিয়াম ফকনার তো বলেছেন, ‘সেরা উপন্যাস’।

''পৃথিবীর প্রতিটি সুখী পরিবার একই রকমভাবে সুখী, প্রতিটি অসুখী পরিবার নিজের নিজের ধরণে অসুখী।”

এই মনস্তাত্বিক বাক্যটি দিয়ে শুরু হয়েছে আনা কারেনিনা নামক পৃথিবীর অন্যতম মনস্তাত্বিক উপন্যাস। মাইক্রসফট তার Encarta Encyclopedia বিশ্বকোষ-এ টলস্টয়কে পরিচয় করিয়ে দেবার সময় এই বাক্যটি দিয়ে শুরু করেছে। যেন এটি এমন একটি বাক্য গোটা টলস্টয়কে পরিচয় করিয়ে দেবার জন্য যথেষ্ট। আর টলস্টয় সম্বন্ধে অন্যরা কী বলেছে? “পৃথিবী যদি লিখতে পারতো, তাহলে টলস্টয় এর মতো করে লিখত” (দস্তয়ভস্কি) এই এক উপন্যাস লিখেই টলস্টয় পৃথিবীতে অমর হতে পারত। কিন্ত যার কাঁচামালের অভাব নেই, তার অমর হবার মতো আরো কিছু আছে। “ওয়ার এন্ড পিস” এবং “রিজারেকসন” তেমন আরো দুটো অমর কীর্তি।

কেনো আনা কারেনিনা ব্যতিক্রমধর্মীঃ 

আনা কারেনিনা শুধু ব্যতিক্রমধর্মী নয়, বাস্তবধর্মীও বটে। আমরা সাধারণত উপন্যাসে নায়ক, নায়িকাকে দেখি দোষ-ত্রুটির ঊর্ধ্বে ভালো মানুষ হিসেবে – যেটা বাস্তবে একেবারেই অসম্ভব। সমরেশ মজুমদারের ‘কালবেলা’য় অনিমেষ, যাযাবরের দৃষ্টিপাতে-এ “আধারকার” ইত্যাদি সব উপন্যাসেই নায়কদের মধ্যে মানবীয় দুর্বলতা পাওয়া যায় না। ব্যতিক্রম টলস্টয় এর উপন্যাস “আনা কারেনিনা”। উপন্যাসের নায়িকাকে চিত্রিত করেছেন “দোষ-গুণ” দিয়ে সৃষ্ট মর্ত্যের মানবী হিসেবে। যার চরিত্র আদর্শ নয়, আছে পদস্খলন – তাকেই উপন্যাসের লিডিং পয়েন্টে নিয়ে আসা – ব্যাপারটা খুবই কঠিন। তবে সেটা আমাদের জন্য, টলস্টয় এর জন্য নয়।

উপন্যাসের সার সংক্ষেপ হোলো “আনা কারেনিনা একজন সম্ভ্রান্ত বংশের মহিলা। ভাই এবং  বৌদির মধ্যে যে মনোমালিন্য সৃষ্টি হয়েছে, সেটার সমাধান করার জন্য সে মধ্যস্থতার ভূমিকা পালন করে। কিন্ত দুর্ভাগ্যজনক ভাবে তার সংসারেই অশান্তির সৃষ্টি হয়, তিনি জড়িয়ে পড়েন পরকীয়ার মতো ঘৃণ্য সামাজিক ব্যধিতে। স্বামীর সাথে তার ব্যবধান শুরু হয়, পরিণতিতে বিবাহ বিচ্ছেদ। আনা কারেনিনা প্রেমিক ভ্রনস্কিকে বিবাহ করেন, কিন্ত ধীরে ধীরে তার সাথে তার দুরত্ব সৃষ্টি হয়, এবং একসময় প্রবল সন্দেহ। শেষে “আনা কারেনিনা” আত্নহত্যা করতে বাধ্য হন। এখানে উপন্যাসের মূল বক্তব্য হচ্ছে ”আদর্শহীন চরিত্র কিভাবে সমাজ এবং ব্যক্তিজীবনে পতন নিয়ে আসে তাই ফুটিয়ে তোলা”। সম্পূর্ণ উপন্যাসে একটি অশ্লীল বাক্য উল্লেখ না করেও কিভাবে সমাজের অশ্লীলতা ফুটিয়ে তোলা যায় তা টলস্টয় দেখিয়ে দিয়েছেন – যেটার থেকে আমাদের দেশের সাহিত্যিকদের অনেক কিছু শেখবার আছে বিশেষ করে যারা “খেলারাম খেলে যা” জাতীয় অপন্যাস লিখে কাটতি বাড়িয়ে থাকেন।

সাইড চরিত্র লেভিনঃ

সাধারণত লেখক যার আদর্শকে পছন্দ করেন তাকেই উপন্যাসের নায়ক নায়িকা করেন, এখানেই টলস্টয় ব্যতিক্রম। নিজে যাকে আদর্শবান মনে করছেন তাকে উপন্যাসের প্রধান চরিত্রে না দিয়ে পার্শ্ব  চরিত্রে এনেছেন– “লেভিন”। অনেকেই বলে থাকেন লেভিন হোলো টলস্টয় নিজে। উপন্যাসে দেখা যায় লেভিন কিভাবে নাস্তিক থেকে ক্রমশ: আস্তিকে পরিণত হয়।  

Buy it 

02.Madame Bovary- By Gustave Flaubert 


১৮৫৬ সালে প্রকাশিত ‘মাদাম বোভারি’ ফরাসি লেখক গুস্তাভে ফ্লবার্টের প্রথম উপন্যাস। গল্পটি এক চিকিত্সকের স্ত্রী, এমা বোভারিকে ঘিরে আবর্তিত হয়েছে, যিনি গতানুগতিক আর শূন্য জীবন থেকে পালাতে পরকীয়ায় জড়িয়ে গিয়েছিলেন। উপন্যাসটি ১৮৫৬ সালের ১ অক্টোবর থেকে ১৫ ডিসেম্বর পর্যন্ত লা রেভ্যু দ্য প্যারিসে ধারাবাহিকভাবে প্রকাশিত হয়। এসময় আইন কর্মকর্তারা অশ্লীলতার অভিযোগ তুলেছিলেন এর বিরুদ্ধে। পরের বছর জানুয়ারি মাসে এ নিয়ে মামলার ফলে ব্যাপক পরিচিতি পেয়ে যায় উপন্যাসটি। রায়ে ফ্লবার্ট নির্দোষ বলে প্রমাণিত হওয়ার পর বইটি প্রকাশ পায় এবং সে বছরের এপ্রিল মাসের মধ্যে সেরা বিক্রিত বইয়ের তালিকায় স্থান করে নেয়। এই উপন্যাসটি ফ্লবার্টের একটি মাস্টারপিস বলে মনে করেন সমালোচকেরা।


Buy it 

03.Lolita-By Vladimir Nabokov

রাশিয়ান-আমেরিকান লেখক ভ্লাদিমির নাবোকভের ‘ললিতা’ উপন্যাস ১৯৫৫ সালে প্রকাশিত হয়। এই উপন্যাসটি তার বিতর্কিত বিষয়গুলোর জন্য আলোচিত। গল্পের প্রধান চরিত্র মধ্যবয়সী সাহিত্যের অধ্যাপক হামবার্ট তাঁর ১২ বছর বয়সী সেময়ের প্রেমে পড়েন এবং তার সঙ্গে শারীরিক সম্পর্কও গড়ে ওঠে তাঁর। উপন্যাসটি ইংরেজি ভাষায় লেখা হয় এবং প্যারিসে অলিম্পিয়া প্রেস ১৯৫৫ সালে এটি প্রকাশ করে। পরে লেখক নিজেই এটি রুশ ভাষায় অনুবাদ করেন এবং নিউ ইয়র্কে ফায়েদ্রা পাবলিশার্স ১৯৬৭ সালে উপন্যাসটি প্রকাশ করে। প্রকাশের পর খুব দ্রুতই সমালোচকদের নজর কাড়ে ললিতা। বর্তমানে এটি বিংশ শতাব্দির সেরা সাহিত্যকর্মের একটি বলে বিবেচিত হয়। বইটিকে উপজীব্য করে ১৯৬২ সালে এবং ১৯৯৭ সালে চলচ্চিত্রও নির্মিত হয়।

Buy it 

04.Adventures of Huckleberry Finn- By Mark Twain


মার্ক টোয়েনের ‘অ্যাডভেঞ্চার অব হাকলবেরি ফিন’ ১৮৮৪ সালের ডিসেম্বর মাসে যুক্তরাজ্যে এবং ১৮৮৫ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে যুক্তরাষ্ট্রে প্রকাশিত হয়। আমেরিকান সাহিত্যের সেরা কাজগুলোর একটি বলে মনে করা হয় এই বইটিকে। গল্পের চরিত্র হাকলবেরির বয়ানে ঘটনার বয়ান হয়েছে এতে। মিসিসিপি নদীর তীরের মানুষ আর স্থানগুলোর বর্ণিল বর্ণনার কারণেই পাঠকের মন জয় করেছে বইটি। বর্ণবাদ নিয়ে ব্যাঙ্গও বইটির সেরা তালিকায় স্থান করে নিতে সহায়ক হয়েছে।

Buy it 

05.Hamlet-By William Shakespeare


নাট্যকার উইলিয়াম শেক্সপিয়র ‘হ্যামলেট’ ঠিক কবে লিখেছিলেন, তার সঠিক কোনো তারিখ পাওয়া যায় না। তবে মনে করা হয়, ১৫৯৯ সাল থেকে ১৬০২ সালের মধ্যে এটি রচিত। ডেনমার্কের রাজা হ্যামলেটকে হত্যা করে তাঁর ভাই ক্লদিয়াসের সিংহাসনে আরোহন, ভাইয়ের বিধবা স্ত্রীকে বিয়ে এবং তাঁর  যুবরাজ হ্যামলেটের প্রতিশোধ নেওয়ার ঘটনাগুলোই এই নাটকে বর্ণিত হয়েছে। হ্যামলেট শেক্সপিয়রের দীর্ঘতম নাটক এবং ইংরেজি সাহিত্যে সবচেয়ে শক্তিশালী এবং প্রভাবশালী শোকবহ রচনা বলে পরিগণিত হয়।

Buy it 

06.The Great Gatsby-By F.Scott Fitzgerald



আমেরিকান লেখক এফ স্কট ফিেজরাল্ডের উপন্যাস ‘দ্য গ্রেট গ্যাটসবাই’ ১৯২৫ সালে প্রকাশিত হয়। এতে সমৃদ্ধ লং আইল্যান্ডের এক কল্পিত নগরীতে চরিত্রগুলোর বাস। ১৯২২ সালের এক গ্রীষ্মে ঘটনার সূত্রপাত। এতে প্রথমে রহস্যময় ধনী যুবক জে গ্যাটসবাই, তার খামখেয়ালি আর সুন্দরী ডেইজি বুচাননের প্রতি তার দুর্বলতাকে কেন্দ্র করে ঘটনা এগিয়ে গেছে। এই উপন্যাসে লেখক অবক্ষয়, আদর্শবাদ, সমাজে আকস্মিক পরিবর্তন, পরিবর্তনে প্রতিরোধ ইত্যাদি বিষয়ের ওপর আলোকপাত করা হয়েছে।

Buy it 


07.In Search of Lost Time- By Marcel Proust

 
অতীত সময়কে বইয়ের পাতায় সংরক্ষণ করেছে মারসেল প্রোস্টের ‘ইন সার্চ অব লস্ট টাইম’। সাত খণ্ডের এই উপন্যাসটি এর দৈর্ঘ্যের জন্যও উল্লেখযোগ্য। এর অধ্যায়গুলোর মধ্যে মেডেলিনের অধ্যায়টি সেরা উদাহরণ হতে পারে, যা প্রথম খণ্ডেই সংযুক্ত হয়েছে। সি কে স্কট মনক্রিফ এবং টেরেন্স কিলমারটিন উপন্যাসটিকে ইংরেজিতে অনুবাদ করার পর এটি জনপ্রিয় হয়ে ওঠে। ১৯০৯ সাল থেকে উপন্যাসটি রচনা শুরু করেন প্রোস্ট এবং ১৯২২ সালের শরতে অসুস্থ হয়ে পড়া পর্যন্ত তিনি এ নিয়ে কাজ করে গেছেন। ফ্রান্সে এটি ১৯১৩ সাল থেকে প্রকাশ হতে শুরু করে।

Buy it 

08.Stories of Anton Chekhov- By Anton Chekhov


ছোট গল্পের সেরা লেখক মনে করা হয় অ্যানটন শেকভকে। তিনি তাঁর গল্পে রাশিয়ার মানুষদের জীবন তুলে ধরেছেন। তাঁর লেখা গল্পগুলোর মধ্যে থেকে সেরা ৩০টি গল্প নিয়েই প্রকাশিত হয়েছে ‘দ্য স্টোরিজ অব অ্যানটন শেকভ’। দ্য হান্টসম্যান, আ বোরিং স্টোরি, ওয়ার্ড নম্বর সিক্স, দ্য লেডি উইথ দ্য লিটল ডগ—এই গল্পগুলোর মধ্যে উল্লেখযোগ্য।

Buy it 

09.Middlemarch- By George Eliot


গতাণুগতিক জীবনকে ঘিরে ইংরেজ লেখক জর্জ এলিয়ট রচনা করেছেন ‘মিডলমার্চ’। ১৮২৯ সাল থেকে ১৮৩২ সাল পর্যন্ত মিডলমার্চের কল্পিত নগর মিডল্যান্ডের ঘটনাবলি এই উপন্যাসে বর্ণিত হয়েছে। বেশ কয়েকটি গল্পের সমন্বয় ঘটেছে এখানে এবং অনেকগুলো প্রধান চরিত্রকে ঘিরে উপন্যাসটি সামনে বেড়েছে। এতে সমাজে নারীর অবস্থান, আদর্শবাদ, স্বার্থপরতা, ধর্ম, ভণ্ডামি, রাজনৈতিক সংস্কার এবং শিক্ষাব্যবস্থা নিয়ে আলোচনা হয়েছে। কৌতুকেরও অভাব নেই এই উপন্যাসে।

Buy it 

10.War and Peace- by Tolstoy


তলস্তয়ের এই উপন্যাসটি বিশ্বসাহিত্যের উল্লেখযোগ্যতম কাজ। এটি তাঁর নিখুঁত সাহিত্যগুলোর মধ্যে সেরা বলেও মনে করা হয়। এই উপন্যাসে পাঁচটি অভিজাত পরিবারের বয়ানের মাধ্যমে ফ্রান্সের রাশিয়া আক্রমণের ঘটনা এবং নেপোলিয়ান যুগে সিজারিক সমাজের ওপর প্রভাব আলোচিত হয়েছে। উপন্যাসটি বই আকারে ১৮৬৯ সালে প্রথম প্রকাশিত হয়। নিউজউইক ২০০৯ সালে বইটিকে সেরা ১০০ বইয়ের তালিকায় সবার ওপরে রাখে। ২০০৯ সালে টাইম ম্যাগাজিন ‘ওয়ার অ্যান্ড পিস’কে বিশ্বসাহিত্যের সেরা ১০ বইয়ের তালিকায় তৃতীয় অবস্থানে রাখে।

Buy it 




0 comments:

Post a Comment